You are currently viewing কৃষক বন্ধু ২০২২ প্রকল্পের টাকা ঢুকছে না কেন ? | Krishak Bondhu 2022 Payement Status Update
image : Google

কৃষক বন্ধু ২০২২ প্রকল্পের টাকা ঢুকছে না কেন ? | Krishak Bondhu 2022 Payement Status Update

Krishak Bondhu 2022 Payement Status Update : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সকল চাষীদের জন্য 2019 সালের নতুন একটি প্রকল্পের সূচনা করেছিলেন। কৃষির বিভাগের তরফ থেকে এই প্রকল্পের নাম রাখা হয়েছিল ‘ কৃষক বন্ধু ‘ । কৃষক বন্ধু নামের এই প্রকল্পটির মূল উদ্দেশ্য হল পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অধীনে থাকা সফল ছোট বড় কৃষককে ভাবে সহযোগিতা করা যাতে কৃষকরা চাষবাসে কিছুটা হলেও আর্থিক সহকারে তা পায় । ‘ কৃষক বন্ধু ‘ ( Krishak Bondhu ) প্রকল্পের আরো একটি মূল উদ্দেশ্য হলো কৃষকের অকাল মৃত্যুর ক্ষেত্রে কৃষকের পরিবারকে সামাজিক নিরাপত্তা প্রদান করা এবং আর্থিক দিক থেকে সাবলম্বী করে তোলা । 

স্কিমের নাম কৃষক বন্ধু
রাজ্যের নামপশ্চিমবঙ্গ
অনুদানের পরিমাণ সর্বনিম্ন ৪,০০০ ( চার হাজার ) টাকা বছরে
ওয়েবসাইট https://krishakbandhu.net/
Krishak Bondhu 2022 Payement Status Update

খারিফ মৌসুমের কৃষক বন্ধুর টাকা দেওয়ার তারিখ কবে ? | Krishak Bondhu 2022

কৃষক বন্ধু প্রকল্পে খারিফ মৌসুমীর জন্য রাজ্যে কৃষি বিভাগ থেকে নির্ধারিত টাকা কৃষকের খাতায় জমা করা হয় এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে । এই টাকাটি দেওয়ার কারণ হলো বর্ষাকালিন ফসলের ফলন পরিমাণ বাড়ানোর জন্য রাজ্যের কৃষককে আর্থিক দিক থেকে সহায়তা করা। কৃষক বন্ধু প্রকল্পের খাড়িফ মরসুমের টাকা দুটি কিস্তিতে কৃষকের ব্যাংকে জমা করা হয়। এই ক্ষেত্রে সর্বাধিক ১০,০০০ টাকা সহায়তা পেতে পারেন একজন কৃষক।

কৃষক বন্ধু ২০২২ প্রকল্পের টাকা ঢুকতে দেরি কেনো হচ্ছে  ? | Krishak Bondhu 2022 Payement Status Update

ইতিমধ্যে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় কৃষক বন্ধু খারিফ মৌসুমের আর্থিক অনুদান কৃষকদের ব্যাংক একাউন্টে জমা হয়ে গিয়েছে। তবে এখনো কিছু জেলা রয়েছে যেখানে কৃষকরা এই মৌসুমের টাকা পাননি , অথচ তাদের কৃষক বন্ধু ( Krishak Bondhu 2022 Payment Status Update ) প্রকল্পের আবেদন গ্রহণ করা হয়েছে । যে সমস্ত কৃষকরা এখনো পর্যন্ত এবছরের টাকা পাননি তাদের চিন্তার কোনো কারণ নেই বলে জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গ কৃষি অধিদপ্তর । এবার কৃষক বন্ধু প্রকল্পের টাকা যেহেতু সরাসরি আধার কার্ডের নাম্বারের মাধ্যমে না দিয়ে ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার এবং আইএফএসসি কোড দিয়ে টাকা প্রদান করা হচ্ছে সে কারণে কিছু সময় দেরি হচ্ছে বলে জানিয়েছে রাজ্য । 

প্রধানমন্ত্রী কৃষি যোজনা ( PM Kisan Yojana  2022 ) টাকা ইতিমধ্যে চাষীদের ব্যাংক একাউন্টে জমা করে দিয়েছে কেন্দ্র সরকার । প্রধানমন্ত্রী কৃষি যোজনা টাকা যেহেতু আধার কার্ডের নাম্বার ধরে চাষীদের ব্যাংক একাউন্টে দেওয়া হয়েছে সে কারণে এত তাড়াতাড়ি টাকা পেয়েছে চাষীরা।

আরও পড়ুন :

সবার সাথে শেয়ার করুন

Leave a Reply